সুরেলা চাতক


10 July 2016।

আ ন ম আমিনুর রহমানঃ

বিশ্ব পরিবেশ দিবসের (০৫-০৬-২০১৬) সকালে পাখি পর্যবেক্ষণের পুরোনো সঙ্গী কামালকে নিয়ে নিজের কর্মস্থল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসের গাছপালা-ঝোপঝাড়পূর্ণ এলাকায় ঘোরাঘুরি করছিলাম। কৃষি বনায়ন বিভাগের আমলকী বাগানের কাছে আসতেই নানা প্রজাতির পাখি চোখে পড়ল। সবগুলোই ছিল চেনাজানা পাখি। হঠাৎ কামাল খোঁপাওয়ালা এক অচেনা পাখি দেখে চিৎকার করে উঠল। পাখিটিকে ফ্রেমে এনে যেই না ক্লিক করব, ঠিক তখনি ওর মতো আরেকটি পাখি এসে হাজির হলো। এরপর দুজনে উড়ে গিয়ে সামনের ঘাসভরা জমির পাশের গজারিগাছে বসল। ওদের বেশ কিছু ছবি তুললাম। সাদা-কালো খোঁপাধারী এই পাখিটি এক প্রজাতির দুর্লভ কোকিল চাতক (Pied Cuckoo, Pied Crested Cuckoo বা Jacobin Cuckoo)। পাপিয়া বা পিঁউকাহা নামেও পরিচিত। Cuculidae গোত্রের এই কোকিলটির বৈজ্ঞানিক নাম Clamator jocobinus. চাতক লম্বালেজি ঝুঁটিযুক্ত কোকিল। ঠোঁটের আগা থেকে লেগের ডগা পর্যন্ত দৈর্ঘ্যে ৩৩ সেন্টিমিটার, যার মধ্যে লেজটিই ১৬ সেন্টিমিটার। ওজন মাত্র ৬৫ গ্রাম। মাথায় কালো ঝুঁটি, দেহের উপরিভাগ কালো ও নিচটা সাদা। লেজের ডগায় সাদা দাগ ও পাখার প্রান্তে সাদা ছোপ। চোখ বাদামি ও ঠোঁট কালো। পা ও পায়ের পাতা ধূসর-কালো এবং নখ কালো। অপ্রাপ্তবয়স্কগুলোর পিঠ ধূসর-বাদামি, গলা-বুক ধূসর ও দেহতলে পীতাভ আভা রয়েছে। চাতক গ্রীষ্মের পরিযায়ী পাখি। এরা বছরের পর বছর একই দিনে এই জায়গায় পরিযায়ন করে। গ্রীষ্মকালে এ দেশের বন, বাগান, আবাদি জমি, খামার, ঝোপঝাড় সর্বত্রই দেখা যায়। শীতকালে এরা পূর্ব আফ্রিকায় বাস করে। এশিয়ায় এদের বাংলাদেশ ছাড়াও ভারত, পাকিস্তান, আফগানিস্তান, ইরান, নেপাল, শ্রীলঙ্কা ও মিয়ানমারে দেখা যায়। সচরাচর একাকী, জোড়ায় বা পাঁচ-ছয়টির ছোট দলে থাকে। ঘন ঝোপ বা পাতাঘেরা গাছে লুকিয়ে খাবার খায়। প্রজাপতি ও মথের শূককীট, ছারপোকা, উঁইপোকা, পিঁপড়া ইত্যাদি প্রিয় খাবার। জুন থেকে আগস্ট এদের প্রজননকাল। যেহেতু এরা কোকিল পরিবারের পাখি, তাই কখনোই বাসা বানায় না, আর ডিমে তা দেওয়ার তো প্রশ্নই ওঠে না। স্ত্রী চাতক লুকিয়ে লুকিয়ে পোষক পাখির বাসায় তার পাড়া দু-তিনটি ডিম ফেলে দিয়ে ঠিক একই রঙের প্রায় সমান আকারের দু-তিনটি ডিম পাড়ে। সচরাচর একাধিক বাসায় ডিম পাড়ে। এরা সাধারণত ফিঙে, বুলবুল, ছাতারে প্রভৃতি পাখির বাসায় ডিম পাড়তে পছন্দ করে। চাতকের ডিম সচরাচর পোষক পাখির ডিমের আগে ফোটে ও চাতকের সদ্য ফোটা অন্ধ বাচ্চা পোষক পাখির অনুপস্থিতিতে তার নিজস্ব ডিমগুলোকে পিঠ দিয়ে ঠেলে ঠেলে ফেলে দেয়। এভাবেই পরজীবী এই চাতক ছানা অন্য পাখির বাসায় প্রতিপালিত হয়ে একদিন নীল আকাশে ডানা মেলে।

Source: www.prothom-alo.com/bangladesh/article/910060

Photo Source: www.prothom-alo.com/bangladesh/article/910060

error: Content is protected !!