অবহেলিত আগাছা পেপারোমিয়া

Peperomia

Peperomia

আমাদের অতি পরিচিত আগাছা যাকে আমরা সকলেই পেপারোমিয়া নামে অবাঞ্ছিত উদ্ভিদ হিসেবেই জানি। মাটি থেকে মূলরোমের দ্বারা শোষিত পানি ও খনিজ লবণের দ্রবণ (রস) যে জাইলেম বাহিকার মধ্য দিয়ে পাতায় পৌছায় তা একটি পরীক্ষার মাধ্যমে প্রমাণ কর। এই প্রশ্ন ও এর সমাধান আজকাল অনেক ছোট বাচ্চাকেও শেখানো হয়।সুতরাং পানি পরিবহনের এই পরীক্ষাটি করেননি এমন কাউকেই খোঁজে পাওয়া যাবে না। আমি যদি নতুন করে এই বিষয়ে আলোচনা করতে চাই তাহলে আপনারা মনে মনে হলেও বলবেন বেটা আমাদের সাথে তামাশা শুরু করেছে।

Peperomia pellucida’র প্রজাতি অংশের শব্দটি নেয়া হয়েছে ল্যাটিন ভাষা থেকে। ল্যাটিন ভাষায় pellucida ‘র আভিধানিক ইংরেজি অর্থ হল “transparent”, যার বাংলা হল “স্বচ্ছ”, কার্ল লিনিয়াস এই প্রজাতির নামকরণটি যথার্থই করেছেন কেননা এখানে নামকরণের সার্থকতা সুন্দর ভাবে ফুটে উঠেছে। কারণ এর পাতা কাণ্ড ও পত্রের শিরা বিন্যাস গুলো স্বচ্ছ। আর এই স্বচ্ছতার জন্যই উদ্ভিদের কাণ্ডে ও পাতায় পানি পরিবহনের পরীক্ষাটি আমরা করতে পারি। এর আরও কিছু সুন্দর নাম আছে সেগুলোর সাথে আপনাদের পরিচয় করিয়ে দিতে চাই। pepper elder, silverbush, rat-ear, man-to-man, clear weed ইত্যাদি নামে বিভিন্ন দেশে এটি পরিচিত।

Peperomia pellucida হল Piperaceae (গোল মরিচ পরিবার) পরিবারভুক্ত বর্ষজীবী অগভীর মুল বিশিষ্ট হার্ব। এরা সাধারণত ১৫-৪৫ সেমি উঁচু হয়ে থাকে। এদের মুল সাকুলেন্ট, চকচকে ও হার্ট আকৃতির মাংসল পত্র বিশিষ্ট। অনেকগুলো স্পাইকের মধ্যে Dot-like বীজ গুলি সংযুক্ত থাকে। এদের বীজ থেকে সরিষার মত গন্ধ পাওয়া যায়। Piperaceae পরিবারের প্রায় ডজন খানেক গন ও তিন হাজার প্রজাতি আছে।সারা বছরই এদের পুস্পায়ন ঘটে। এদেরকে সাধারণত ছায়া যুক্ত স্থানে এশিয়ার সর্বত্র জন্মিতে দেখা যায়। এরা যেহেতু ভিজা স্যাঁতসেঁতে পরিবেশে জন্মায় তাই এদের বীজ অঙ্কুরোদগম হতে অনুকূল পরিবেশের প্রয়োজন হয়। অনুকূল পরিবেশের অভাবে বীজ ৭-৮বছর পর্যন্ত সুপ্তাবস্থায় থাকতে পারে। পাখি গেছো শামুক মাটিতে জন্মানো পোকা কর্তৃক ও মাটি স্থানান্তরের কারণে যথাক্রমে এদের পরাগায়ন ও বীজের বিঃসরন ঘটে।

Peperomia

Peperomia

একটু পর্যবেক্ষণ করলেই দেখবেন আপনার বাসায় ছায়া যুক্ত স্থানে রক্ষিত টবে পেপারোমিয়া হঠাৎ উঁকি ঝুঁকি দিচ্ছে। অবাকও হতে পারেন কারণ এই টবটি প্রায় ৪-৫ বছর যাবৎ প্রচণ্ড রোদে পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে ছিল। আপনি মাটি পরিবর্তন না করে অনেক দিনের পুরানো মাটিকে খুঁচিয়ে পানি দিয়ে নরম করে একটা ছায়া প্রিয় গাছ লাগিয়ে যখনই পরিচর্যা শুরু করলেন দেখা গেলো একদিন ভোরে পেপারোমিয়া আপনাকে দেখে হাসি দিচ্ছে! কেন হাসছে? নিশ্চয়ই এর পিছনে অনেক রহস্য লুকিয়ে আছে। কেনই বা হাসবে না বলুন! আপনি এত বড় উপকার করলেন তাকে এত বছরের সুপ্তাবস্থা থেকে তুলে এনে নতুন জীবন শুরু করিয়ে দিলেন। আর যাই হোক উদ্ভিদ আমাদের মত অকৃতজ্ঞ নয়!!

আমাদের দেশে প্রাপ্ত Peperomia pellucida প্রজাতিটি খাদ্য ও ঔষধ হিসেবে ব্যবহার করা যায়। তবে এটি আগাছা হিসেবে জন্মিলেও এর হালকা সবুজ পত্র বিন্যাস ও এদের ইনফ্লোরোসেন্স যে কারো নজর কাড়ে। বিশেষ করে এর পর্ণরাজি শোভা বর্ধন করে। যেমন এই উদ্ভিদ বর্ষাকালে যখন ইটের দেয়াল গাত্রে জন্মে তখন এদের ফেলে না দিয়ে রেখে দিলে বাগানের সৌন্দর্য অনেকাংশে বাড়িয়ে দেয়। এই উদ্ভিদের সমস্ত অংশ রান্না অথবা কাঁচা অবস্থায় খাওয়া যায়।

এদের analgesic properties থাকার কারণে prostaglandin synthesis এর উপর এর প্রভাব আছে। বিস্তৃত বর্ণালীর এন্টিবায়োটিক হিসেবে এদের সুখ্যাতি রয়েছে। যেমন Staphylococcus aureus, Bacillus subtilis, Pseudomonas aeruginosa ও Escherichia coli.এই ধরনের ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে কার্যকরী ফলাফল প্রদর্শন করে।এদের শুকনা পাতা থেকে Chloroform extracts vitro স্টাডিতে Trichophyton mentagrophytes এর বিরুদ্ধে antifungal (ছত্রাক নাশক) ফলাফল প্রদর্শন করে।

ট্র্যাডিশনাল (Ethnomedicine) ঔষধ হিসেবে P. pellucida পেটের ব্যথা, ফোঁড়া,ব্রণ,বাতের ব্যথা,গিটে বাত ও প্রচণ্ড মাথা ব্যথায় ব্যবহার করা হয়। ব্রাজিলে এই উদ্ভিদের কাণ্ড ও পাতা লিপিড লেয়ারিং এজেন্ট হিসেবে ব্যবহার করা হয়। এই উদ্ভিদের ক্কাথ(decoction) ইউরিক এসিড লেভেল কমিয়ে দেয় ফলে ফিলিপাইনের লোকজন একে কিডনি সমস্যায় সেবন করে।

উদ্ভিদে প্রাপ্ত এসেনসিয়েল অয়েলের প্রধান ক্যামিকেল হল সেস্কুইতারপিন।Carotol হল প্রধান হাইড্রোক্সিলেটেড সেস্কুইতারপিন যা পেপারোমিয়া উদ্ভিদের ক্যামিকেল বিশ্লেষণ করে পাওয়া গিয়েছে। ফ্লাভোনয়েডস, ফাইটোস্টেরল, আর্লপ্রোপানয়েড প্রভৃতি ক্যামিকেল পেপারেমিয়া উদ্ভিদ থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে যা বহু বছর যাবত মানব কল্যাণে ব্যবহার হয়ে আসছে। এতে প্রাপ্ত আর্লপ্রোপানয়েড ছত্রাক নাশক ফলাফল প্রদর্শন করে। আগাছা হিসেবে পরিচিত এইসব উদ্ভিদগুলিকে আমরা যতই অবহেলার চোখে দেখি না কেন, এরা কিন্তু আমাদেরকে খাদ্য পুষ্টি পথ্য ও ঔষধের যোগান দিয়ে যাচ্ছে আর নীরবে অক্সিজেন সরবরাহ করছে।

সতর্কতা: যে কোন ঔষধ রেজিস্টার্ড চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া সেবন ও বিতরণ উচিৎ নয়।

error: Content is protected !!